এ কোন সকাল, রাতের চেয়েও অন্ধকার

স্বাধিনতার আগে ব্রিটিশ রাজত্বে বিভিন্ন ক্লাবে লেখা থাকতো, ডগস অ্যান্ড ইন্ডিয়ান্স আর নট আলাউড  , আজ চৌঠা ডিসেম্বর ২০১৬, কলকাতা ফুটবলের ইতিহাসে এই দিনটা কালো অক্ষরে লেখা থাকবে কারন কিছু গুন্ডা ও নোংরা সমর্থকদের অত্যাচারে জর্জরিত ইষ্টবেঙ্গল ক্লাব এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হোল, প্রতি রবিবার ক্লাবে সমর্থকদের প্রবেশ নিষেধ।কারন ক্লাবের গ্যালারীতে  চুম্মাচাটি, মদ  গাঁজাখাওয়া জুয়া খেলা ইত্যাদি ইত্যাদি নোংরামিতে ক্লাবের মান সন্মান লঙ্ঘিত হচ্ছে



যদিও বাড়ে বাড়ে এই ক্লাবের বিভিন্ন সমর্থকরা বাড়াবাড়ি ও অসভ্যতামর চূড়ান্ত নিদর্শন বিভিন্ন ক্ষেত্রে তুলে ধরেছে, কখনো দিপেন কর্মকার মোহন বাগান সমর্থকদের কেটে ফেলার হুমকি দিয়েছে  তো কখনো ইষ্টবেঙ্গল আলত্রাস নামক ফ্যান ক্লাব মোহন বাগান মাঠে এসে জলন্ত মশাল ছুঁড়ে মেরেছে ক্লাবের গাড়ি ভাংচুর করেছে।

তবে এই সিদ্ধান্ত কিছু প্রশ্নর জন্মও দিলো,
১. রবিবার বন্ধ, অন্য দিন নয় কেন? মানে কি অন্য দিন কি এই সব অসভ্যতামি বৈধ?
২. রবিবার দরজা বন্ধ করে কি আরও কিছু ঘোটালা হবে নাকি?

প্রশ্ন আমাদের, জানি এর উত্তরে ইষ্টবেঙ্গল সমর্থকদের মুখ থেকে বাছাবাছা খিস্তি নির্গত হবে কিন্তু শুভবুদ্ধি সম্পন্ন ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা নিজের বুকে হাত দিয়ে বলুনতো, কষ্ট লাগছে না ? সহ্য করতে পারছেন এই অপমান? আপনারাই পারেন ক্লাব থেকে এই বেনো জলদের পেছনে লাথ মেরে আপনাদের মাতৃসম ক্লাব থেকে দূর করতে আর বাংলার ফুটবলকে দুষ্কৃতী মুক্ত করে এই লজ্জা এই অসন্মানের হাত থেকে নিজেদের হৃত সন্মান কে পুনরুদ্ধার করতে,

জয় বাঙ্গালীর ফুটবল, ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের চৈতন্য হোক



Share on Google Plus

About Pradip Hazra

This is a short description in the author block about the author. You edit it by entering text in the "Biographical Info" field in the user admin panel.

0 comments :

Post a Comment